শুক্রবার, ১৯ Jul ২০২৪, ০৯:০০ অপরাহ্ন

Notice :
সারা বাংলাদেশ ব্যাপী বিভিন্ন জেলা প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে..........চট্টগ্রাম অফিস: সৈয়দ নূর বিল্ডিং , এম এ আজিজ রোড, সিমেন্ট ক্রসিং, দক্ষিণ হালিশহর, চট্টগ্রাম।মোবাইল নাম্বারঃ ০১৯১১৫৩৩৩০৮, ০১৭১১৪৬৭৫৩৭, E-mail: gsmripon@gmail.com
সংবাদ শিরোনাম:
ইপিজেড থানার অভিযানে ৫ বছরের কারাদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত সাজা পরোয়ানাভুক্ত আসামি গ্রেফতার লিঙ্গ বৈচিত্রময় হিজড়া জনগোষ্ঠীর নিরাপদ, সুষ্ঠু ও সুন্দর শিক্ষা ব্যবস্থাই আমাদের লক্ষ্য পবিত্র আশুরা ২০২৪ উদ্‌যাপন উপলক্ষ্যে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত। ইপিজেড থানার অভিযানে অজ্ঞান পার্টির তিন সদস্য গ্রেফতার। আমার দরজা সবার জন্য সবসময় খোলা “মিট দ্য প্রেস” এ সিএমপি কমিশনার। ৪০০ কেজি সামুদ্রিক মাছ জব্দ ও ১লক্ষ ১৬ হাজার ৫০০ টাকা নিলাম আবুল কালাম হত্যাকাণ্ডের ক্লুলেস মামলার পলাতক আসামি আরিফ হোসেন’কে ৭২ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৭ ৮০০ কেজি সামুদ্রিক মাছ জব্দ ও ১লক্ষ ৭০ হাজার টাকা নিলাম মোবাইলে খেলতে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ৬ বছরের শিশু’কে ধর্ষণ আটক -১ র‍্যাব-৭ ও র‍্যাব-১১ বেসরকারী পর্যায়ে চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল চিকিৎসা সেবায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে – ডাঃ সামন্ত লাল সেন- স্বাস্থ্য মন্ত্রী

চট্টগ্রাম ইপিজেড এলাকার একই পরিবারের ৩সদস্য সহ টাঙ্গাইলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫..!

চট্টগ্রাম ইপিজেড এলাকার একই পরিবারের ৩সদস্য সহ টাঙ্গাইলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫..!

মোঃ শাহরিয়ার রিপন ঃ- ০৩জুলাই

চট্টগ্রাম নগরীর ইপিজেড থানাধীন,দক্ষিণ হালিশহর জবু ফকিরের বাড়ীর একই পরিবারের তিন সদস্য (বড়বোন-ফেরদৌসি বেগম,মেঝোবোন-ফরিদা বেগম, ভাগনি : মারিয়া) টাঙ্গাইলের কালিহাতিতে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন।
পরিবার সূত্রে জানা গেছে, তারা ক্যান্সার চিকিৎসার জন্য সিরাজগঞ্জের ইউনুছ আলী হাসপাতালে যাচ্ছিলেন।

 


দুর্ঘটনায় ফরিদা আক্তার, মেয়ে মারিয়া, বড় বোন ফেরদৌসী, অ্যাম্বুলেন্সের চালক সাদ্দাম ও চালকের সহকারী জুয়েল মারা যান। গুরুতর আহত হন ফরিদার সাত বছরের মেয়ে মাহি ও ভাতিজা মারুফ। তাঁরা টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
নিহতের ভাই জাবেদ আলী মোবাইলে বলেন, সন্তানদের জন্য ফরিদার বেঁচে থাকার খুব আকাঙ্ক্ষা ছিল। সিরাজগঞ্জ থেকে চিকিৎসা করাচ্ছিলেন। আগের কেমোথেরাপিগুলো সফলভাবে নিতে পেরে আশাবাদী হয়ে উঠছিলেন তাঁর বোন। এবারের কেমোটি নেওয়ার জন্য যাত্রাপথেই জীবন থেমে গেল তাদের।
বিষয়টি আজ শনিবার(০৩জুলাই) সকালে খবর পেয়ে ইপিজেড থানার পাশে জবু ফকিরের বাড়ীতে ও এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে….! এদিকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত খবর নিয়ে জানা গেছে লাশ এখনো চট্টগ্রামে এসে পৌছায় নি।
লাশ আসলে নিকটস্থ (টিসিবি ভবন) এরিয়ায় হোন্দল পাড়া কবরস্থানে জানাযা শেষে তাদের দাফন করা হতে পারে বলে পরিবার সুত্রে জানাগেছে।
দুর্ঘটনায় ফরিদা আক্তার, মেয়ে মারিয়া, বড় বোন ফেরদৌসী, অ্যাম্বুলেন্সের চালক সাদ্দাম ও চালকের সহকারী জুয়েল মারা যান। গুরুতর আহত হন ফরিদার সাত বছরের মেয়ে মাহি ও ভাতিজা মারুফ। তাঁরা টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

 

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2023 Channel69tv.net.bd
Design & Development BY ServerNeed.com