মঙ্গলবার, ২৩ Jul ২০২৪, ১২:০৫ পূর্বাহ্ন

Notice :
সারা বাংলাদেশ ব্যাপী বিভিন্ন জেলা প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে..........চট্টগ্রাম অফিস: সৈয়দ নূর বিল্ডিং , এম এ আজিজ রোড, সিমেন্ট ক্রসিং, দক্ষিণ হালিশহর, চট্টগ্রাম।মোবাইল নাম্বারঃ ০১৯১১৫৩৩৩০৮, ০১৭১১৪৬৭৫৩৭, E-mail: gsmripon@gmail.com
সংবাদ শিরোনাম:
ইপিজেড থানার অভিযানে ৫ বছরের কারাদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত সাজা পরোয়ানাভুক্ত আসামি গ্রেফতার লিঙ্গ বৈচিত্রময় হিজড়া জনগোষ্ঠীর নিরাপদ, সুষ্ঠু ও সুন্দর শিক্ষা ব্যবস্থাই আমাদের লক্ষ্য পবিত্র আশুরা ২০২৪ উদ্‌যাপন উপলক্ষ্যে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত। ইপিজেড থানার অভিযানে অজ্ঞান পার্টির তিন সদস্য গ্রেফতার। আমার দরজা সবার জন্য সবসময় খোলা “মিট দ্য প্রেস” এ সিএমপি কমিশনার। ৪০০ কেজি সামুদ্রিক মাছ জব্দ ও ১লক্ষ ১৬ হাজার ৫০০ টাকা নিলাম আবুল কালাম হত্যাকাণ্ডের ক্লুলেস মামলার পলাতক আসামি আরিফ হোসেন’কে ৭২ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৭ ৮০০ কেজি সামুদ্রিক মাছ জব্দ ও ১লক্ষ ৭০ হাজার টাকা নিলাম মোবাইলে খেলতে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ৬ বছরের শিশু’কে ধর্ষণ আটক -১ র‍্যাব-৭ ও র‍্যাব-১১ বেসরকারী পর্যায়ে চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল চিকিৎসা সেবায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে – ডাঃ সামন্ত লাল সেন- স্বাস্থ্য মন্ত্রী

প্লট দূর্নীতি নিয়ে চট্টগ্রামে ৪ সাংবাদিকের স্ত্রীসহ ৯ বিরুদ্ধে দুদকের মামলা।

প্লট দূর্নীতি নিয়ে চট্টগ্রামে ৪ সাংবাদিকের স্ত্রীসহ ৯ বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ
চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব সদস্য, সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক পদধারী নেতা ও চট্টগ্রাম সাংবাদিক কো-অপারটিভ হাউজিং সোসাইটি লিমিটেড ১৯৯৪-৯৭ তৎকালীন দায়িত্বপ্রাপ্ত কমিটির কর্মকর্তা ৪ সাংবাদিক ও তাদের স্ত্রী ৩ বহিরাগত ২ জন মোট ৯ জনের বিরুদ্ধে ২৫ নভেম্বর ২০২০ দুদকের সহকারী পরিচালক মোঃ আবু সাঈদ এ মামলা দায়ের করেন। উল্লেখিত এজাহারে বিজ্ঞ মেট্রোপলিটন সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালত -চট্টগ্রাম এর বিশেষ মামলা নং- ৫২/২০১৮ মূলে অনুসন্ধান করতে গিয়ে থলের বিড়াল বেরিয়ে আসে। সাংবাদিক নেতাদের কাছ থেকে রক্ষা পায়নি কবরস্থানের জায়গাও। সরকার কতৃক লীজকৃত জায়গা শুধু মাত্র সাংবাদিকদের নামে বরাদ্দ দেওয়ার কথা থাকলেও তৎকালীন কমিটিতে পদপ্রাপ্ত হওয়ায় ক্ষমতা অপব্যবহার করে স্ত্রীদের নামে সুকৌশলে প্লট বরাদ্দ নামে অন্যত্রেও ক্রয়-বিক্রয়ে করেন।সরকার ১৯৮২ সালে বর্তমান বায়েজিদ থানাধীন শেরশাহ কলোনির পাশেই উচটিলাতে ১৬ (একর) খাস জায়গা লীজ দেয়। ৯২ সালে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কতৃপক্ষ (চউক) ১০৯ টি প্লট ক্রমিক উল্লেখ ও চিহ্নিত করন পূর্বক রাস্তা,মসজিদ,কবরস্থানের জায়গা সহ আবাসনের অপরিহার্য স্হান/জায়গা চিহ্নিত করে লে-আউট অনুমোদন দেয়। এদিকে আসামীরা পরস্পর যোগসাজশে সিডিএর পূর্বের নকশা জালিয়াতির মাধ্যমে নকশা বর্হিভূতভাবে সরকারি খাস জমিসহ ১১০,১১১,১১২ ও ১১৩ নং প্লট সৃজন করে মোট ১১৩ টি প্লট সম্বলিত একটি মিথ্যা বানোয়াট লে-আউট /নকশা প্রনয়ন তা পরবর্তীতে বরাদ্দ প্রদান করে। সকল সদস্য ৫ কাঠা করে প্লট বরাদ্দ পেলেও ৩ টি প্লটকে জালিয়াতির মাধ্যমে লে-আউট তৈরি করে নিজ স্ত্রীদের নামে বরাদ্দ দিয়ে আবার বরাদ্দকৃত জায়গা মোটা অংকে বিক্রয় করেন উত্তর বন বিভাগের সাবেক ডিএফও আব্দুল ওয়াদুদ’র এর স্ত্রী মোছাম্মৎ হুমায়েরা ওয়াদুদ নিকট। ঠিকাদার হিসেবে কাজ করে খাগড়াছড়ির বাসিন্দা মোঃ সেলিম নামক এক ব্যক্তি।দুদক কর্মকর্তা জানান সরজমিন অনুসন্ধান ও কাগজ পত্র তথ্য প্রমান পাওয়ায় এ মামলা করা হয়। যাদের বিরুদ্ধে মামলা হয় চট্টগ্রাম সাংবাদিক কো-অপারটিভ হাউজিং সোসাইটির তৎকালীন সভাপতি মাহাবুব উল আলম, সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন তার স্ত্রী হোসনে আরা, কোষাধ্যক্ষ শহীদ উল আলম তার স্ত্রী তসলিমা খানম,যুগ্ম সম্পাদক নির্মল চন্দ্র দাস তার স্ত্রী তপতি দাস, মোঃ সেলিম, মোছাম্মৎ হুমায়রা ওয়াদুদ। সমাজ সেবা অধিদপ্তরের কর্মকর্তাও তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত রিপোর্ট দাখিল করেন।জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের তদন্ত রিপোর্ট দাখিল ও আদেশের বিরুদ্ধে মাহাবুব উল আলম গংরা মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের হাই কোর্ট ডিভিশন ২৫ জানুয়ারী ২০০৫ সালে রীট আবেদন করেন। ২০০৫ সালে ৯ জুলাই অনুষ্ঠিত সমিতির বিশেষ সাধারণ সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তে উক্ত রীট মামলা সীমিতকে পক্ষভুক্ত করে দ্রুত নিষ্পত্তি ব্যবস্হা গ্রহণ, রীট মামলার নিস্পত্তি সাপেক্ষে দোষী অপরাধী সদস্যদের সদস্য পদ বাতিল সংক্রান্ত কার্যকরী কমিটির প্রস্তাব অনুমোদন এবং সমিতির ৩ টি প্লটের অবৈধ বরাদ্দ সংক্রান্ত সৃজিত ইজার দালিল গ্রহিতা সমিতির সদস্য হিসেবে ভুয়া পরিচয় দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ফৌজদারী মামলা ও দালিল বাতিলের মামলা দায়ের করা সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।মহামান্য হাইকোর্ট উক্ত রীট আবেদন ৬ নভেম্বর ২০১৬ সালে খারিজ করে দিয়ে আবেদনটি নিষ্পত্তি করেন।১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭ সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভায় অভিযুক্তদের কাছে থাকা বেআইনি বরাদ্দ পাওয়া ৩ টি প্লট উদ্ধার বিষয়ে ১৫৬ সদস্য উপস্থিতিতে এজেন্ডা বাস্তবায়ন ও আসামীগনের বিরুদ্ধে ফৌজদারী মামলা দায়ের করার সিদ্ধান্ত হয়। এদিকে দুদকের মামলায় ৯ আসামীদের মধ্যে ৪ সাংবাদিক আসামী বিগত ২০ বছর ধরে কোনো পত্রিকায়ও কর্মরত নেই। ৩ নং আসামী শহীদ উল আলম কয়েকবার চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ও একবার বিএফইউজে’র সহ সভাপতি ছিলেন। ২০ বছর ধরে কোনো পত্রিকায় কর্মরত না থেকেও সাংবাদিক নেতা হিসেবে নিজেকে দাপটের সাথে জাহির করাই তার কাজ। চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সুবিধাবাদী নেতা হিসেবেও ব্যপক পরিচিত রয়েছে।।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2023 Channel69tv.net.bd
Design & Development BY ServerNeed.com